Breaking news

১৯ বছর বয়সে প্রযোজকের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছিলেন লেডি গাগা
১৯ বছর বয়সে প্রযোজকের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছিলেন লেডি গাগা

১৯ বছর বয়সে প্রযোজকের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছিলেন লেডি গাগা

 

১৯ বছর বয়সে ধর্ষণের শিকার হয়ে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছিলেন মার্কিন পপ তারকা লেডি গাগা। গানের রেকর্ডিং পুড়িয়ে দেয়ার হুমকির মুখে একজন সঙ্গীত প্রযোজক তাকে ধর্ষণ করে। ৩৫ বছর বয়সী লেডি গাগা ২০০৫ সালের ওই ঘটনা এখনও ভুলতে পারেননি। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির খবরে এমনটিই বলা হয়েছে।

১৯ বছর বয়সে প্রযোজকের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছিলেন লেডি গাগা
 

১৯ বছর বয়সে ধর্ষণের শিকার হয়ে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছিলেন মার্কিন পপ তারকা লেডি গাগা। গানের রেকর্ডিং পুড়িয়ে দেয়ার হুমকির মুখে একজন সঙ্গীত প্রযোজক তাকে ধর্ষণ করে। ৩৫ বছর বয়সী লেডি গাগা ২০০৫ সালের ওই ঘটনা এখনও ভুলতে পারেননি। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির খবরে এমনটিই বলা হয়েছে।

প্রিন্স হ্যারি ও অপরাহ উইনফ্রের প্রযোজনা ও উপস্থাপনায় অ্যাপল প্লাস টিভি সিরিজে ‘দ্য মি ইউ কান্ট সি’ শিরোনামে একটি নতুন শো শুরু হয়েছে।

ওই অনুষ্ঠানের এই কথা বলেন তিনি। গাগা জানান, পরবর্তী সময়ে এ ঘটনা তাঁর জীবনকে বদলে দেয়।

লেডি গাগা বলেন, ‘আমি সেসময় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলাম। তা থেকে বেরিয়ে আসতে আমি রীতিমতো যুদ্ধ করেছি। এখনও সেই ঘটনা আমাকে পীড়া দেয়। আমি ভয়াবহ সেই পরিস্থিতি ভুলতে পারি না। মনে হয় দুঃস্বপ্ন দেখছি।’

নিজের জীবনের ভয়াবহ ঘটনা তুলে ধরতে গিয়ে গাগা বলেন, ‘আমার বয়স তখন সবেমাত্র ১৯ বছর। একজন শিল্পীর ক্যারিয়ার শুরুর সময়ে যেমন সংগ্রাম করতে হয়, আমিও সেটার মধ্যে ছিলাম।

সেসময় আমি একটি সঙ্গীত প্রযোজনা টিমের সঙ্গে কাজ করছিলাম। আমার কিছু গান রেকর্ড করা হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘ওই সঙ্গীতের প্রযোজক আমাকে হঠাৎ পোশাক খুলতে জোর করেন। আমি সেখান থেকে কৌশলে বেরিয়ে আসি। পরে তারা আমাকে ফোনে জানায়, আমি যদি প্রযোজকের কুপ্রস্তাবে রাজি না হই, তারা আমার রেকর্ড করা সব গান পুড়িয়ে দেবে। বাধ্য হয়ে আমি সেখানে ফিরে গিয়েছিলাম।’

sexy gaga 

লেডি গাগা বলেন, ‘আমি প্রযোজককে অনেক অনুরোধ করলেও সে থামেনি। তারা স্টুডিওর কক্ষ তালাবদ্ধ করে আমার ওপর অত্যাচার চালায়। আমি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ি। তারা আমাকে কয়েক মাস স্টুডিওতে রাখে। সেমময় আমি প্রচুর বমি করেছিলাম এবং মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়ি। আমি মানসিক এবং শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলাম। একা কোথাও থাকলে আমি আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়তাম।’

এই গায়িকা আরও জানান, ওই প্রযোজক তাকে অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় তার মা-বাবার বাড়ির পাশে রেখে যায়। এর আগে কয়েক মাস স্টুডিওতে বন্দি ছিলেন তিনি। এই ঘটনায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন এবং তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়।

 

গাগা বলেন, ‘আমি মানসিকভাবে পুরো বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিলাম এবং কয়েক বছর আর আগের মতো স্বাভাবিক হতে পারিনি। মনে হচ্ছিল, আমার মস্তিষ্ক অফলাইনে চলে গেছে। বুঝতে পারছিলাম না কেন সবাই আমার মতো ভয় পায় না। কিন্তু আমি অন্য রকম মানসিক বিকারগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলাম। মনে হতো এক টুকরো কালো মেঘ সব সময় অনুসরণ করছে এবং মনে করিয়ে দিচ্ছে, তুমি মূল্যহীন এবং তোমার মরে যাওয়াই ভালো।’

তবে পুরো সাক্ষাৎকারে সঞ্চালক বারবার সেই সঙ্গীত প্রযোজকের নাম জানার চেষ্টা করলেও ভুলেও অভিযুক্তের নাম মুখে আনেননি লেডি গাগা।


Published: 2021-06-25 16:50:06   |   View: 1181   |  
Copyright © 2017 , Design & Developed By maa-it.com



up-arrow