Breaking news

রাজনীতিবিদরা নয়, বেশি অর্থপাচার করেন সরকারি কর্মচারীরা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
রাজনীতিবিদরা নয়, বেশি অর্থপাচার করেন সরকারি কর্মচারীরা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রাজনীতিবিদরা নয়, বেশি অর্থপাচার করেন সরকারি কর্মচারীরা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রাজনীতিবিদরা নয়, বিদেশে বেশি অর্থপাচার করেন সরকারি কর্মচারীরা বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন।

 

বুধবার (১৮ নভেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি-ডিআরইউতে ‘মিট দ্য প্রেস’ অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। ডিআরইউ’র সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এবং সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরী অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন।

গোপনে কানাডার টরোন্টোতে অবস্থিত বাংলাদেশিদের বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হয়েছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমার ধারণা ছিল রাজনীতিবিদদের সংখ্যা বেশি হবে। কিন্তু আমার কাছে যে তথ্য এসেছে, যদিও এটি সামগ্রিক তথ্য নয়, সেটিতে আমি অবাক হয়েছি। সংখ্যার দিক থেকে আমাদের অনেক সরকারি কর্মচারীর বাড়িঘর সেখানে বেশি আছে এবং তাদের ছেলে-মেয়েরা সেখানে থাকে।’

 

বিদেশে টাকা পাচার করছে এমন অনেক লোক আছে এবং অনেকে তাদের ছেলে-মেয়ে বিদেশে রাখছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার কাছে ২৮টি কেস এসেছে এবং এরমধ্যে রাজনীতিবিদ হলেন চার জন। এছাড়া কিছু আছেন আমাদের তৈরি পোশাক শিল্পের ব্যবসায়ীরা। আমরা আরও তথ্য সংগ্রহ করছি।’

শুধু কানাডা নয়, মালয়েশিয়াতেও একই অবস্থা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘তবে তথ্য পাওয়া খুব কঠিন। বিভিন্ন মিডিয়ায় যে তথ্য বের হয়, হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার হচ্ছে, আসলে সংখ্যাটি তত নয়।’

এরজন্য বিদেশি সরকারও কিছুটা দায়ী জানিয়ে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘যেমন, সুইজারল্যান্ডে কে ব্যাংকে টাকা রাখলো, সেই তথ্য আমাদের দেয় না। তারা ট্রান্সপারেন্সির কথা বলে, কিন্তু যদি বলি কার কার টাকা আছে, সেই তথ্য দাও, তখন তারা দেয় না। এটি একটি ডাবল স্ট্যান্ডার্ড।’


Published: 2020-11-25 19:42:58   |   View: 1163   |  
Copyright © 2017 , Design & Developed By maa-it.com



up-arrow