Breaking news

পরকীয়া প্রেমিক চেতনানাশক খাইয়ে হত্যা করে প্রবাসীর স্ত্রীকে
পরকীয়া প্রেমিক চেতনানাশক খাইয়ে হত্যা করে প্রবাসীর স্ত্রীকে

পরকীয়া প্রেমিক চেতনানাশক খাইয়ে হত্যা করে প্রবাসীর স্ত্রীকে

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নতুন যাবদপুর গ্রামে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার রহস্য উদঘাটন হয়েছে। পরকীয়া প্রেমিক মামুন মণ্ডলের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় কুয়েত প্রবাসী স্বামীর বাড়ি ফেরার খবরে। এরপর শরবতের সঙ্গে চেতনানাশক পান করিয়ে গৃহবধূ জেসমিন খাতুন আয়নাকে গলা কেটে খুন করে মামুন।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক। নিহতের ভাইয়ের করা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত মামুন মণ্ডলসহ ২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদেই বেরিয়ে এসেছে এসব তথ্য।

গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তিরা হলেন, যাদবপুর গ্রামের মামুন হোসেন (২৭) ও আব্দুর রহমানের ছেলে রাব্বি হাসান (১৬)।

পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক বলেন, স্বামী কুয়েত প্রবাসী হওয়ায় প্রতিবেশী যুবক মামুন মণ্ডলের সঙ্গে আয়নার বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে মামুন বিয়ের প্রস্তাব দেন আয়নাকে। কিন্তু তিনি বিয়েতে অস্বীকৃতি জানানোয় তাদের মধ্যে বিবাদ তৈরি হয়। এরই মধ্যে আয়নার স্বামী হাবিবুর রহমান হাবিলের দেশে ফেরার খবরে আরো ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন মামুন। এক পর্যায়ে আয়নাকে চেতনানাশক মিশ্রিত শরবত পান করিয়ে ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, আয়নার মরদেহ বিবস্ত্র অবস্থায় ঘরে পড়ে ছিল। এ থেকে আমাদের সন্দেহ হয়- তাকে হত্যার আগে ধর্ষণ করা হতে পারে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।

উল্লেখ্য, গত ৭ সেপ্টেম্বর রাত আড়াইটার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নতুন যাবদপুর গ্রামে প্রবাসীর স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন ৩ জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। পরে গত ৮ সেপ্টেম্বর রাতে নিহতের ভাই আব্দুর রউফ বাদী হয়ে বেশ কয়েক জনকে অজ্ঞাত আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।


Published: 2021-09-09 10:34 am   |   View: 1165   |  
Copyright © 2017 , Design & Developed By maa-it.com



up-arrow