Breaking news

রান আউটে ডি ককের দোষ দেখছেন না ফখর
রান আউটে ডি ককের দোষ দেখছেন না ফখর

রান আউটে ডি ককের দোষ দেখছেন না ফখর

ফখর জামানের রান আউট হওয়া নিয়ে তোলপাড় ক্রিকেটবিশ্ব। গতকাল (রবিবার) দক্ষিণ আফ্রিকা-পাকিস্তান দ্বিতীয় একদিনের ম্যাচে কুইন্টন ডি কক বোকা বানিয়ে রান আউট করেন জামানকে। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দক্ষিণ আফ্রিকার উইকেটরক্ষকের তুমুল সমালোচনা হচ্ছে। তবে ফখর জামান জানিয়েছেন, পুরোটাই তাঁর নিজের ভুল। এতে ডি ককের কোনো দোষ নেই।

 

জোহানেসবার্গে রবিবার ম্যাচের শেষ ওভারে ঘটনাটি ঘটে। পাকিস্তানের জেতার জন্য শেষ ওভারে দরকার ছিল ৩১ রান। তখন ১৯৩ রানে স্ট্রাইকে ছিলেন ফখর জামান। প্রথম বলে অফের দিকে শট খেলে জামান ঠিক করেন দুটি রান নেবেন। তিনি যখন দ্বিতীয় রান নেওয়ার জন্য আবার স্ট্রাইকে ফিরছেন, তখন ডি কক ফিল্ডারের উদ্দেশে এমন ইঙ্গিত করেন, যাতে মনে হয় তিনি নন স্ট্রাইকার প্রান্তে বল ছুঁড়তে বলছেন। ডি ককের এই ইঙ্গিত দেখে জামানও দৌঁডানোর গতি কমিয়ে দেন। কিন্তু ফখর কিছু বুঝে ওঠার আগেই বল এসে সরাসরি স্ট্রাইক প্রান্তের স্ট্যাম্পে আঘাত করে। রান আউট হয়ে যান ফখর।

মাঠের আম্পায়াররাও ফখরকে আউট দিয়ে দেন। একদিনের ক্রিকেটে রান তাড়া করে সর্বোচ্চ রানের বিশ্বরেকর্ড করার পর ফিরে যেতে হয় ফখরকে। এরপর স্বাভাবিক ভাবেই সবথেকে বেশি সমালোচনা শুরু হয় পাকিস্তানে। সেখানকার ক্রিকেটপ্রেমীদের বক্তব্য, ইচ্ছা করে এবং অন্যায়ভাবে ফখরকে আউট করেছেন ডি কক। এটা ক্রিকেটের আইন এবং স্পিরিটের বিরোধী।

 

তবে খোদ ফখর এর জন্য একেবারেই ডি কককে দোষ দিতে নারাজ। তিনি বলেন, ভুলটা তাঁরই। ফখরের বক্তব্য, ‘উল্টো দিকে থাকা হ্যারিস রউফকে দেখতে এত ব্যস্ত ছিলাম, আর বল দেখিনি। এটা সম্পূর্ণভাবে আমার ভুল। আমার মনে হয়েছিল হ্যারিস ঠিক সময়ে উইকেটে পৌঁছাতে পারবে না। তাই ওর দিকে তাকিয়ে ছিলাম। আমার মনে হয় না ডি কক কোনো অন্যায় করেছে। এটা একেবারেই আমার ভুল। বাকিটা আইসিসির ম্যাচ রেফারির ব্যাপার।’

এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ৩৪১ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা। পরে পাকিস্তান ব্যাটিংয়ে নেমে ৯ উইকেটে ৩২৪ রান করে। ফখর জামান ১৫৫ বলে ১৯৩ রান করেন।


Published: 2021-04-13 15:57:47   |   View: 1167   |  
Copyright © 2017 , Design & Developed By maa-it.com



up-arrow