Breaking news

মারা গেছেন বিশ্বের সবচেয়ে ‘বয়স্ক ব্যক্তি`
মারা গেছেন বিশ্বের সবচেয়ে ‘বয়স্ক ব্যক্তি`

মারা গেছেন বিশ্বের সবচেয়ে ‘বয়স্ক ব্যক্তি`

প্রায় দেড়শ বছর বয়সে মারা গেছেন বিশ্বের সবচেয়ে ‘বয়স্ক ব্যক্তি’ ইন্দোনেশিয়ার অধিবাসী সোদিমেজো। মে গোতা নামে সমধিক পরিচিত এ ব্যক্তি গত রোববার নিজ গ্রামে মৃত্যুবরণ করেন।

কাগজপত্র অনুযায়ী, মধ্য জাভার অধিবাসী সোদিমেজোর বয়স হয়েছিল ১৪৬ বছর। তার জন্ম হয়েছিল ১৮৭০ সালে।

দেশটির কর্মকর্তারা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, সোদিমেজোর সঙ্গে কথা বলে এবং জন্ম তারিখের স্বপক্ষে তিনি যেসব কাগজপত্র এবং প্রমাণ জমা দিয়েছেন তা যাচাই করে এই বয়স সম্পর্কে নিশ্চিত হয়েছেন তারা। যদিও ইন্দোনেশিয়ায় জন্ম সনদ তৈরির কাজ শুরু হয় ১৯০০ সালে।

স্বাস্থ্যগত কারণে গত ১২ এপ্রিল সোদিমেজোকে হাসপাতালে নেয়া হয়। কিন্তু তিনি সেখানে থাকতে চাননি। বাড়ি ফিরে যাওয়ার জন্য জেদ ধরলে তাকে ছেড়ে দেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

তার নাতি সুয়ান্তো বিবিসিকে বলেন, হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার পর তিনি মাত্র কয়েক চামচ জাউ এবং সামান্য পানি পান করেছেন। এভাবে কয়েক দিন কাটানোর পর মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি খাওয়া-দাওয়া একেবারেই ছেড়ে দেন।

গত বছর সোদিমেজো বিবিসিকে একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন। সেখানে তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, তার এই দীর্ঘ জীবনের গোপন ‘রহস্য’ কী?

জবাবে তিনি জানিয়েছিলেন, একটি হচ্ছে ধৈর্য। আর অন্যটি হচ্ছে ভালবাসা- যারা আমার আশেপাশে রয়েছেন, আমাকে দেখাশোনা করছেন তাদের ভালবাসা।

চেইন স্মোকার সোদিমেদজো অতীত ইতিহাস বর্ণনার জন্য নিজ গ্রামে বেশ জনপ্রিয় ছিলেন। বিশেষ করে তার কাছে জাপান ও নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে যুদ্ধের বর্ণনা শুনতে তারা খুব পছন্দ করতেন। তার চার স্ত্রী, ১০ ভাই-বোন এবং সব সন্তান আগেই মারা গেছেন।

আত্মীয়রা জানান, তার কবরের জন্য নির্ধারিত ফলকটি দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির দরজার পাশে পড়ে ছিল। গত সোমবার তাকে কবর দেয়ার পর ফলকটি পুঁতে দেয়া হয়।

Published: 2020-09-20 01:20:23   |   View: 1378   |  
Copyright © 2017 , Design & Developed By maa-it.com



up-arrow