Breaking news

ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে এখন ঘরে বসেই ডলার উপার্জন করা সম্ভব : আইসিটি প্রতিমন্ত্রী
ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে এখন ঘরে বসেই ডলার উপার্জন করা সম্ভব : আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে এখন ঘরে বসেই ডলার উপার্জন করা সম্ভব : আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, মার্কিন ডলার আয়ের জন্য আর বিদেশে পাড়ি দেওয়ার প্রয়োজন নেই, বরং ঘরে বসেই ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে এখন ডলার উপার্জন করা সম্ভব। 
তিনি বৃহস্পতিবার সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে ‘শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টারের’ ভিত্তি-প্রস্তর স্থাপন উপলক্ষ্যে শহীদ এম মনসুর আলী অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক অনাড়ম্বর আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। 

যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিরাজগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়।
অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. বিকর্ণ কুমার ঘোষ  এ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।
‘শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার’ সিরাজগঞ্জবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এক অনন্য উপহার উল্লেখ করে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আশা করছি আগামী দেড় বছরের মধ্যে এই আইটি ট্রেনিং সেন্টারের নির্মাণ কাজ শেষ হয়ে যাবে এবং দু’বছরের মধ্যে এখানে আমরা কার্যক্রম শুরু করবো।’

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার’ থেকে প্রতি বছর এক হাজার তরুণ-তরুণী  প্রশিক্ষণ নিয়ে তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারবে। এসব  তরুণ-তরুণীরা সিরাজগঞ্জের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসেই ইউরোপ আমেরিকার বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে কাজ করে ইউএস ডলার আয় করবে। ডলার আয়ের জন্য আর বিদেশে পাড়ি দিতে হবে না।  

তিনি বলেন, এস.এস.সি ও এইচ.এস.সি পর্যায়ে ছাত্র-ছাত্রীদের আইটিতে দক্ষ জনশক্তি হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে এই প্রকল্প গৃহীত হয়েছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে নতুন- নতুন উদ্যোক্তা তৈরি করে একাডেমিয়া এবং আইটি ইন্ডাস্ট্রির মধ্যে সেতুবন্ধন প্রতিষ্ঠা করা হবে। ফলে আইটি/আইটিইএস খাতে বাংলাদেশের যুব সমাজের আত্ম-কর্মসংস্থানের ব্যাপক সুযোগ সৃষ্টি হবে। 
প্রতিমন্ত্রী এ সময় জানান, শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার থেকে বের হয়ে তরুণ উদ্যোক্তারা আইটি ইন্ডাস্ট্রিতে যেন ব্যাপক পরিসরে কাজ করতে পারেন, সে-লক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন জায়গায় হাই-টেক পার্ক স্থাপনের কাজও সমান্তরালে চলমান রয়েছে। 

বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ দেশের ৬৪টি জেলায় আইটি খাতে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির লক্ষ্যে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপন করছে। এরই অংশ হিসেবে সিরাজগঞ্জে আজ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হলো। 
সিরাজগঞ্জ ছাড়াও এই প্রকল্পের আওতায় মানিকগঞ্জ, ভোলা, জয়পুরহাট, কিশোরগঞ্জ, কুষ্টিয়া, বান্দরবান, নারায়ণগঞ্জ, চাঁদপুর, দিনাজপুর ও মেহেরপুর এই ১০টি জেলায় শখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপন করা হচ্ছে। বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে এবং বাংলাদেশ সেনাবহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে ১১টি জেলায় প্রায় ৭শ’ ৯৯ কোটি টাকা ব্যয়ে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।
বাংলাদেশ ডিজেল প্ল্যান্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ মো. রফিকুল ইসলাম, শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপন (১১ জেলা) প্রকল্পের পরিচালক একেএম আব্দুল্লাহ খান, সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ, পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম, সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট কে এম হোসেন আলী হাসান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ তালুকদার, সিরাজগঞ্জ জেলা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ’র সভাপতি আবু ইউসুফ সূর্য এবং
বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


Published: 2022-04-21 10:07 am   |   View: 1175   |  
Copyright © 2017 , Design & Developed By maa-it.com



up-arrow