Breaking news

ধর্ষণ শেষে হত্যা, একজনের যাবজ্জীবন
ধর্ষণ শেষে হত্যা, একজনের যাবজ্জীবন

ধর্ষণ শেষে হত্যা, একজনের যাবজ্জীবন

নারী এনজিও কর্মীকে ধর্ষণ শেষে হত্যার ঘটনায় জড়িত রিপন মোল্যা নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। এছাড়া ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। 

দন্ডপ্রাপ্ত রিপন মোল্যার বাড়ি ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর গ্রামে। তার পিতার নাম কুরবান মোল্যা। গত বৃহস্পতিবার ফরিদপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে বিচারক প্রদীপ কুমার এ রায় দেন। 

রায়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত না থাকায় অপর ৮ জনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়। 

খালাসপ্রাপ্তরা হলেন, সাইদ মাতুব্বর, ফজর খাঁ, বক্কার মোল্যা, রফিক মোল্যা, মিকু মাতুব্বর, রঞ্জু সরদার, বিপুল সরদার ও ওবায়দুর মোল্যা।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালের ১২ জুলাই এসডিসি নামক এনজিও কর্মী শিউলী আক্তার বোয়ালমারী অফিস থেকে সন্ধ্যার পর বাড়ি ফেরার পথে পূর্ব পরিচিত রিপন মোল্যা ও তার সহযোগীরা অপহরণ করে একটি পাটখেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে শিউলী আক্তারকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের পিতা বারেক মোল্যা বাদী হয়ে  বোয়ালমারী থানায় ৯ জনকে আসামি করে একটি মামলা করে। দীর্ঘ শুনানি শেষে এ রায় ঘোষণা করা হয়। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।


Published: 2021-10-16 09:01 am   |   View: 1202   |  
Copyright © 2017 , Design & Developed By maa-it.com



up-arrow